Humayun ahmed books pdf
Trending

একাত্তর এবং আমার বাবা pdf download হুমায়ুন আহমেদ (ekattor ebong amar baba pdf)

Name:- একাত্তর এবং আমার বাবা pdf download by হুমায়ুন আহমেদ   | ekattor ebong amar baba pdf download by Humayun ahmed    

Author:-  Humayun ahmed | হুমায়ুন আহমেদ

Size:-  12MB

একাত্তর এবং আমার বাবা বই এর রিভিউঃ-

ধরণ: আত্মজীবনীমূলক  পৃষ্ঠাসংখ্যা: ১৭৫  প্রথম প্রকাশ: ফেব্রুয়ারি ২০১৪  প্রকাশক: সময় প্রকাশন    হুমায়ুন আহমেদের মৃত্যুর পর আবিষ্কৃত হয় তার একটি পুরনো পান্ডুলিপি,অনেকটা ব্যক্তিগত ডায়রির মত।পরিবারের সকলের সাথে আলোচনা-পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় এটিকে বই আকারে প্রকাশ করা হবে।

বইটির প্রচ্ছদে হুমায়ুন আহমেদের নাম লেখা থাকলেও মূলত এখানে হুমায়ুন আহমেদ ও জাফর ইকবাল,দুজনের লেখাই স্থান পেয়েছে।প্রথম অংশটুকু হুমায়ুন আহমেদের ও শেষ অংশটুকু জাফর ইকবালের যুদ্ধচলাকালীন লেখা ডায়রির অংশ।

বই প্রসংগে বইটির ভূমিকায় জাফর ইকবাল লিখেছেন,”…এই পান্ডুলিপিটি মুক্তিযুদ্ধের সময় লেখা।মুক্তিযুদ্ধের সেই শ্বাসরুদ্ধকর সময়টি এখানে খুব চমৎকার ভাবে ফুটে উঠেছে।এটি মূলত আমাদের পরিবারের কথা,কাজেই পড়ার সময় একাত্তরের সেই সময়ের ছবিটুকু আবার আমার চোখের সামনে দৃশ্যমান হয়ে উঠেছিল।

যারা একাত্তর দেখেনি,তারা এটি পড়ে সেই দুঃসহ সময়ের অনুভূতি খানিকটা হলেও অনুভব করতে পারবে।…”  বইটির প্রচ্ছদ তৈরী করেছেন হুমায়ুন আহমেদের ছোটভাই আহসান হাবীব। ১৭৫পৃষ্ঠার এই বইটি পড়তে খুব বেশি সময় নেবে না।বইয়ের প্রথম দিকেই বোঝা যায় লেখক নিজের সাহসিকতা নিয়ে কতটা ওয়াকিবহাল ছিলেন।

এই অংশটুকু পড়তে বেশ মজা লাগে যেখানে লেখকের ছোট ভাই বোন দুজন ঢাকার উত্তপ্ত পরিস্থিতিতেও নিরুদ্বিগ্ন চিত্তে বাড়ি যাওয়ার প্রস্তাব নাকচ করে দেন এবং বোন শেফু  লেখককে বলেন-“তুমি বড় ভীতু।”!  পড়া শেষ হলে অদ্ভুত একটা অনুভুতি হয়েছিল আমার।বই পড়ুয়াদের অনেকের কাছেই ‘হুমায়ুন আহমেদ’ নামটা একটা ভালোবাসা!তাদের অবশ্যই পড়া উচিত বইটি,হুমায়ুন আহমেদের শেষ বই।

বই রিভিউ ২ঃ-

বইয়ের নাম- একাত্তর এবং আমার বাবা লেখক- হুমায়ূন আহমেদ(শেষ অংশের কিছুটা জাফর ইকবালের লিখিত) প্রকাশনী- সময় প্রকাশন  সারসংক্ষেপ:  একাত্তর এবং আমার বাবা বইটি মুলত হুমায়ূন আহমেদের ব্যক্তিগত একটি ডায়রি থেকেই প্রকাশিত হয়। মূলত এটি কোনো বই আকারে হুমায়ূন আহমেদ লেখেননি।

সম্পূর্ণ নিজের মতো করে তিনি ডায়রিতে বেশ কিছু ঘটনা লিপিবদ্ধ করেছেন। হুট করেই ডায়রিটি বই আকারে প্রকাশিত হয়। একাত্তরে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাতে নিহত হোন হুমায়ূন আহমেদের বাবা ফয়জুর রহমান। সেই উত্তাল সময়টিকে স্মরণীয় কার জন্যে এবং বাবার শেষ জীবনের সময়টুকু ধরে রাখার খাতিরে হুমায়ূন আহমেদ ডায়রিটি লিপিবদ্ধ করেন। ডায়রিটি পুরোপুরি হুমায়ূন আহমেদ নিজে লেখেননি।

পরবর্তী অংশ(শেষ অংশটুকু) তিনি তার ভাই জাফর ইকবালকে দিয়ে লেখান। দুই ভাইয়ের হাতের লেখার এক একটি ছবি বইতে রয়েছে।  বইটিতে উত্তাল সেই একাত্তরের বিভিন্ন বর্ণনা পাওয়া যায়। পাশাপাশি নিজের বাবার প্রতি দুই ছেলের শ্রদ্ধা ভেসে আসে৷ বইয়ের অনেক লেখনীতে পিতার প্রতি দুই পুত্রের ভালোবাসা ফুটে উঠে।

এমনকি বইটি পড়লে আপনি হুমায়ূন আহমেদের পরিবারের বিপর্যয় ও অসহনীয় অবস্থার কথারও উল্লেখ পাবেন।   ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বর্ণনা রয়েছে। দুই ভাইয়ের দৈনন্দিন জীবনের পুরো বিষয়বস্তু তুলে ধরা আছে৷ দুই ভাইয়ের দৈনন্দিন জীবনের সম্পর্কে পড়তে গেলে বোঝা যায়, তারা দুই ভাই মুক্তিযুদ্ধে যুক্ত হবার বিশেষ প্রয়োজন বোধ করেননি।

See also  দরজার ওপাশে pdf download হুমায়ুন আহমেদ

তবু বইটিতে অনেক টুকরো টুকরো ঘটনা জানা যায় ৭১-এর বর্বরতা সম্পর্কে। কিছু কিছু ঘটনায় পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর লুট এবং ডাকাতির বিষয়টিও তুলে ধরা হয়।  ব্যক্তিগত মতামত অনুযায়ী, হুমায়ূন আহমেদের আত্মজীবনীমূলক একটি বই “একাত্তর এবং আমার বাবা” তেমন খারাপ লাগার মতো বই নয়। একাত্তর এবং হুমায়ূন আহমেদ সম্পর্কিত অনেক তথ্যই পেতে পারেন। বইটিকে আমি ৪.৩/৫ রেট করব।  সবাইকে ধন্যবাদ। হ্যাপি রিডিং!  ©Zara Afreen

বই রিভিউ ৩ঃ-

বইয়ের নাম: একাত্তর এবং আমার বাবা  লেখা: হুমায়ূন আহমেদ প্রকাশক: সময় প্রকাশন  প্রচ্ছদ : আহসান হাবীব  প্রথম প্রকাশ : ফেব্রুয়ারি বইমেলা ২০১৪ দ্বিতীয় মুদ্রণ : ফেব্রুয়ারি বইমেলা ২০১৪ মুদ্রিত মূল্য : ৩২৫ টাকা  এ বইটি একটি স্মৃতিকথা। তবে কেবলই স্মৃতিকথা বলে ছেড়ে দিলে তার পেছনে একটা বিশাল শূন্যস্থান পড়ে থাকে, কোনো শব্দই যে শূন্যতাকে পূর্ণ করতে পারে না।

এ বইটির লেখাগুলো হুমায়ূন আহমেদ লিখেছিলে ১৯৭১ এর সেই উত্তাল সময়ে। লেখার ধরন অনেকটা ডায়েরির মতো। বিশ্ববিদ্যালয়,  পরিবার, দেশের পরিস্থিতি – সবটাই এখানে আছে। আর সবচেয়ে বেশি করে আছেন লেখকের পিতা শহীদ ফয়জুর রহমান। বইটি যখন লেখা তখন হুমায়ূন আহমেদ পাঠকপ্রিয় বা জনপ্রিয় “হুমায়ূন আহমেদ” হয়ে ওঠেন নি।

এ লেখাগুলোতে তাই ছেলেমানুষী আছে, তথ্যবিভ্রাট আছে, কিছুটা বানান ভুল ও আছে। এ বইটির শেষ অংশ মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখা। পিতার সাথে শেষ মুহূর্তে কেবল তিনিই ছিলেন, সম্ভবত এ কারণেই হুমায়ূন আহমেদ লেখাটি সমাপ্ত করিয়েছেন অনুজকে দিয়ে। সেসময়ের কিশোর মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখার সাথে এখনকার লেখক মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখার খুব একটা সাদৃশ্য হয়তো পাওয়া যাবে না।

মূল লেখাটি এখানে অবিকৃত রাখা হয়েছে, তবে মূল লেখার বাইরে ত্রুটিগুলো পাঠককে জানিয়ে দেয়ার চেষ্টা হয়েছে, যেন ঐতিহাসিক দলিল হিসেবে এর গ্রহণযোগ্যতা ও অকৃত্রিমতা দুটোই বজায় থাকে। 

বইটি মুক্তিযুদ্ধের সময়ের এক বিচ্ছিন্ন দর্পণের মতো, কিন্তু তার বিচ্ছিন্নতা তার সার্বজনীনতাকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে নি। কারণ সেসময় প্রতিটি মুক্তিকামী মানুষই ছিল একটুকরো বাংলাদেশ। এমনই একটুকরো বাংলাদেশের স্মৃতিকথা “ একাত্তর এবং আমার বাবা”।  (ভাষাচিত্রী নাম্বার ৩৯৪)

From the begging of the ekattor ebong amar baba pdf book:-  

Introduction 

Almost suddenly this manuscript of Humayun Ahmed was discovered.  He was not Humayun Ahmed when he wrote it.  No one can say exactly when it was written.  It is believed that he wrote it in 1971. 

My father’s death at the hands of the Pakistani army was the main issue — because I wrote the next part of exactly where he ended up.  Humayun Ahmed probably finished the first part and asked me to write the rest, because I was with my father on the last day;  So only I can write it.  

See also  এই শুভ্র এই হুমায়ুন আহমেদ pdf download (ei shuvro ei pdf download)

My memory is very weak so I can’t remember when I wrote it.  My siblings or Mao couldn’t remember that so I can’t say the exact time, I’m guessing.  This memoir was written during the liberation war in 1971. 

It’s almost like a personal diary, so there’s been a lot of thought about whether it should be published as a book.  After the end of Humayun Ahmed’s writing, I have discussed with my mother, brother and sister whether the part of my writing will be covered or not. 

I was very reluctant to cover my own part but all of our family decided that the last part should be added to complete the whole writing, so this is the first time my writing has taken the place of a writing by Humayun Ahmed. 

I knew Humayun Ahmed was a popular writer.  In the case of writers, the word should not be popular but should be popular with the readers. Only those readers can become fans of the writer. 

But for some mysterious reason, Humayun Ahmed was not only popular with readers, he was an impossibly popular man.  How he became popular with the general public I thought about it from time to time, I think it happened because of his multifaceted talent. 

The popularity of the plays he wrote for television in Bangladesh was incredible.  I was out of the country then, so I did not see it with my own eyes but I heard that when his drama was shown on television, the roads of Bangladesh would be deserted.

It seemed that a curfew had been imposed.  There was a movement in the country to prevent the character of his play from being hanged.  He had no formal education in filmmaking, yet he made some remarkable pictures. 

There was a deep love for nature, he built Nuhash Palli in the name of his eldest son Nuhash;  It is a land of imagination for the people of this country.  Ordinary people don’t know much, we know, he could draw beautiful pictures and show wonderful magic. 

The biggest thing was his deep love for the liberation war as a generation of the liberation war.  There was a time when it was forbidden for the word razakar to be uttered on people’s faces on television, then the word tui razakar was uttered on the face of a pheasant. 

See also  কাশ্মীর ও আজাদির লড়াই pdf download by আলতাফ পারভেজ

He taught the young generation to love the light and the rain by jumping in the sky.  He taught young women to love.  Perhaps that is why his fans were not limited to just some well-informed readers, for whom people of all walks of life in this country had a deep love.

I knew about that love but I could never imagine how deep or how wide it was.  I felt it for the first time since his death.  For a writer, the people of a country can be loved so deeply, so intensely.

There are probably not many examples of him in the whole world.  I did not know then that I was busy with various things, later I heard that the whole matter of burying him was shown live on television for a few days.  Not only that, all the people in this country have watched it in front of the television.

I will talk about his popularity in a little more detail because this perception has a relationship with the publication of this book.  When Humayun Ahmed wrote this memoir, he did not become the real Humayun Ahmed. 

There are weaknesses in the text, there is childishness, there is wrong information, there is a lot of spelling mistakes – I don’t know if Humayun Ahmed would have wanted to show it in print if he was alive.

But the people of this country have such a deep interest in him that I think we might need to give them a chance to see how young Humayun wrote.  Even though the papers written about half a century ago have faded, the writing has become obscure, I have mistakenly handed over the manuscript written by him in this book.

আরো পড়ুনঃ- এই শুভ্র এই pdf download

আমিই মিসির আলি pdf download

আরেক ফাল্গুন pdf download

আমি এএবং আমরা হুমায়ুন আহমেদ pdf download

তাই আর দেরী না করে একাত্তর এবং আমার বাবা pdf download by হুমায়ুন আহমেদ   | ekattor ebong amar baba pdf download by Humayun ahmed  বইটি ডাউনলোড করুন।      

একাত্তর এবং আমার বাবা pdf   | ekattor ebong amar baba pdf বইটির হার্ডকফি ক্রয় করুন।  

Rokomari.com | boikhata.com | Boierduniya.com

Ultra Next Gen

Best website for Bangla pdf download, Travel guides And many more. It’s the best website for this things

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!