Bangladesh books
Trending

কারাগারের রোজনামচা pdf download (karagarer rojnamocha pdf download)

Name:- কারাগারের রোজনামচা pdf download | karagarer rojnamocha pdf download

Author:- শেখ মুজিবুর রহমান | Sheikh Mujibur Rahman    

Size:-  29MB

কারাগারের রোজনামচা বই রিভিউঃ-

বুক রিভিউ বইয়ের নামঃ কারাগারের রোজনামচা  লেখকঃ শেখ মুজিবুর রহমান পত্র সংখ্যাঃ ৩৩২ প্রকাশনীঃ বাংলা একাডেমি   ১৯৬৬-৬৮ সালের নানা সময়ে বঙ্গবন্ধু কারাগারে কখনো রাজবন্দী আবার কখনো কয়েদি হিসেবে বন্দী থাকা অবস্থায় তার অতিবাহিত দিনগুলোকে রোল টানা খাতাতে লিপিবদ্ধ করেছিলেন।

পরবর্তীতে উদ্ধারকৃত সেই সকল খাতা থেকেই বইটির রুপদান করা হয়েছে। সেই সময় জেলের সাধারণ নিয়ম ভঙ্গ করে বঙ্গবন্ধুকে একা এক কক্ষে বন্দী করে রাখা হয়েছিল। দুর্বিষহ সেই দিনগুলোতে অতিবাহিত নানা ঘটনার বর্ণনা থেকেই বইটি রচিত হয়েছে। যার বর্ণনা থেকেই বুঝা যায় যে মানসিক ভাবে অত্যান্ত প্রখর শক্তির অধিকারী না হলে কোন মানুষের পক্ষে সেখানে সুস্থ ভাবে বেঁচে থাকা সম্ভব ছিল না।

যুক্তিতর্কে, ন্যায়বিচারে অক্ষম আইয়ুব সরকার নিজেদের আসন রক্ষা করবার জন্য কতটা নির্মম হতে পেরেছিলেন তারও একটা রুপ উঠে এসেছে বইটিতপ। বাংলার মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনে তখনকার ( ৬০ এর দশক)  সময়ের রাজনীতি বা রাজনীতিবিদদের সাথে বর্তমান সময়ের রাজনীতি বা রাজনীতিবিদদের মাঝে যে খুব একটা পরিবর্তন সংগঠিত হয় নি বঙ্গবন্ধুর বর্ণনায় সেটি পরোক্ষভাবে অত্যান্ত সূক্ষ্মতার সহিত বইটিতে উঠে এসেছে।

সেই সাথে নীতি – আদর্শের কাছে মাথা নত না করা একজন রাজনীতিবিদ হিসেবে বঙ্গবন্ধুর স্বভাব, চরিত্রেরও কিছুটা বর্ণনা পাওয়া যায় বইটিতে। লেখক হিসেবে পারদর্শী না হলেও নিজের সহজ, সাবলীল বর্ণনায় রচিত বইটির মধ্যে বঙ্গবন্ধুর নিজস্বতার পরিচয় পাওয়া যায়। যা লেখক হিসেবে তাকে বেশ প্রশংসার যোগ্য বলেই মনে হয়।  ১৯৬৬ সালে ৬ দফা পেশ এবং এর প্রতি জনসমর্থন আদায়ে সারা বাংলা সফর করার শুরুতেই বার বার কারাবরণ এবং নানা মামলায় বঙ্গবন্ধু জেলে বন্ধী থেকেছেন অনেকটা বিনা বিচারেই।

আওয়ামীলীগের অন্যান্য নেতারও এ থেকে বাদ পড়েন নি। জেলে বন্ধী করেও আইয়ুব সরকার যেন নিশ্চিত হতে পারছিলেন না। যদি জেলেই সকলের সাথে পরামর্শ করে বিপদ ঘটিয়ে ফেলে? তাইতো একা এক কক্ষে বন্দী করে বঙ্গবন্ধুর জন্য জেলের ভেতরেই আরেকটি জেল তৈরি করারচেষ্টা করা হয়েছিল।

বিনা বিচারে সেই কক্ষের পাশের সেলে পাগলদের রাতভোর পাগলামী, বৃষ্টিতে কক্ষের ভেতরে পানি জমা, নানা প্রকার রোগ ব্যাধী নিয়েও পরিবারের সদস্যদের দেখা পাওয়ার জন্য অপেক্ষা, ছেলে-মেয়ের অবুঝ মনকে ফাঁকি দেয়ি মাসের পর মাস কারাগারে থাকা, পরিবার থাকা সত্ত্বেও তাদের সাথে ঈদ উদযাপন করতে না পারা, খবরের কাগজে দেশের নানা অন্যায়- অত্যাচারের সংবাদ দেখেও কিছু করতে না পারা, জেলে বন্ধী হওয়া নানা আসামীর নির্দোষ করাবরণের কাহিনী শোনা সহ জেলের ভেতরে ঘটে যাওয়া আরও নানা সংবেদনশীল ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে থেকেও তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান আওয়ামী লীগের সভপতির দেশের মুক্তির কথা চিন্তা করা, গণমানুষের স্বাধীনতার কথা চিন্তা করা তার দৃঢ় মানসিকতারই পরিচয় তুলে এনেছে।

রাজনৈতিক সীদ্ধান্তে যতটানা দৃঢ় মনোবল তার থেকেও বেশি ব্যক্তি মুজিব ভালবাসায় দুর্বল। বইটিতে তার নিজের বর্ণনায় বর্ণিত অনেক ঘটনায় সেটিকে তুলে ধরেছে সূক্ষ্ম ভাবে। বাঙ্গালির মুক্তির সনদ ৬ দফার পূর্ণাঙ্গ বর্ণনা সম্পর্কে পাঠকদের একটি সুস্পষ্ট ধারণা দিতে পারে বইটি। কারাগারে অতিবাহিত দিনগুলো নিয়ে রচিত হলেও এখানে ব্যাক্তি মুজিবের বঙ্গবন্ধু হওয়ার পেছনে তার পরিবারের ত্যাগটুকুও উঠে এসেছে কিছুটা নিখাদ বর্ণনায়।

জেলখানার অভ্যান্তরীণ বিষয়বলি জানতে বইটি একটি উৎকৃষ্ট উদাহরণ হতে পারে। কারণ জেলখানার পূর্ণাঙ্গ একটি বর্ণনা বইটিতে রয়েছে। পদ,পদবি, পদমর্যাদায় উপরে অবস্থানের মত বিষয়গুলো কীভাবে জেলখানাতে রয়েছে? সেখানে কীভাবে একে অপরের সাহয্য এগিয়ে আসে? নিজের খাবার অন্যদের সাথে ভাগ করে খায়? জেলাখানাতে থেকেও বাগান করা, মুরগি পালন ইত্যাদি কাজ কারর মধ্য দিয়ে সৃষ্ট নানা প্রকার হাস্যরসাত্নক বর্ণনাও যেন মরুভূমির মধ্যে এক প্রাণের অস্তিত্বের মতো প্রকাশ পেয়েছে।

বইটিকে শুধু মাত্র ব্যক্তি মুজিবের আত্মজীবনীর একটি অংশ বললে ভুল হবে। কারণ তখনকার সময়ের রাজনীতির একটি সুস্পষ্ট বর্ণনার পাশাপশি বাংলার মানুষের ভাগ্য নির্ভর তখনকার অবস্থানেরও একটি চিত্র বইটি থেকে অনুধাবন করা যায়। যে চিত্রের সাথে বর্তমান সময়েরও একটি সাদৃশ্যতা লক্ষ্য করা যায়। বন্যা পরিস্থিতি প্রতি বছর বাংলার মানুষের ভাগ্যে লালা নিশানা হিসেবে আবির্ভূত হয়।

See also  বং থেকে বাংলা pdf download by রিজিয়া রহমান

বঙ্গবন্ধুর সেই সময়ের এই বন্যা সমস্যার বর্ণনা আজ থেকে অর্ধশত বছরের আগের কথা, আজ অর্ধশত বছর পরেও তার পরিবর্তন কতটুকু তা আজ সকলেরই জানা। বইটিতে সমস্যা সমাধান আইয়ুব সরকারের চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়েছেন বঙ্গবন্ধু। শুধু বন্যা পরিস্থিতি নয় আরও যে সকল সমস্যার কথা বইটিতে উঠে এসেছে সেগুলোর স্থায়ী সমাধান আজও অপূর্ণ রয়েছে।

পৃথিবী বদলেছে, দেশ বদলেছে, দিন বদলেছে, সময় বদলেছে, ক্ষমতারও পালা বদল হয়েছে কিন্তু ভাগ্য দুর্দশা যেন বাংলাদেশিদের ছাড়ে নাই। তাইতো বাংলার রাজনীতির সেকালের কিছু বর্ণনায় একালেরও একটি জীবন্ত রুপ উঠে এসেছে বইটিতে।   বইটির মূল অংশটুকুর রচনা বঙ্গবন্ধুর লেখা খাতাগুলো থেকে নেওয়া। তার সেই লেখায় বঙ্গবন্ধুর নিজস্বতার ছাপ বইটিতেও অক্ষুণ্ণ রয়েছে বলে বইটির বর্ণনাগুলো অত্যান্ত জীবন্ত।

দেশের নেতার দুঃখ-দুর্দ্দশার মধ্যে দিয়ে অতিক্রান্ত সেই দিনগুলোর বর্ণনা থেকে পাঠকগণ অনুধাবন করতে পারবেন স্বাধীন বাংলা শুধুমাত্র দুটি শব্দের উচ্চারণ নয়। এর পেছনে রয়েছে হাজারো প্রাণের আত্মদান, রয়েছে হাজারে ত্যাগ। তবে রাজনীতি, জেল, মামলা ইত্যাদি বিষয় দিয়ে বইটি পূর্ণ নয়। এগুলো ছাড়াও কয়েদিদের নানা হাস্যরসাত্নক কর্মকান্ডের বর্ণনা বইটিতে উঠে এসেছে যা পাঠকদের আকৃষ্ট করার জন্য যথেষ্ঠ।

সকল কিছুর মধ্যে দিয়ে বার বার উঠে এসেছে বাংলার মানুষের নিপিড়নের কথা। অধিকার আদায় করে নেওয়ার দক্ষতাও অর্জন করে নিতে হয়, নয় তো জীবনভর বঞ্চিত থাকতে হয়। তবে বঞ্চিত হতে হতে অধিকার পাওয়ার যে আকাঙ্খা তারই নাম যে স্বাধীনতা তার আঁচ বইটিতে কিছুটা পাওয়া যায়।

বই রিভিউ ২ঃ-

বই: কারাগারের রোজনামচা -বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান  -এই বই নিয়ে রিভিউ লিখবো এমন দুঃসাহস আমার একদম নেই। সত্যি বলতে এই বইটির প্রত্যেকটা পৃষ্ঠার,প্রতিটা শব্দ নতুন কিছু শেখাই, অনুপ্রাণিত করে। একজন মানুষ নিজের সমস্ত জীবনটা উৎসর্গ করেছেন তার জাতির মঙ্গল কামনায়।

কত অত্যাচার ,কত সংগ্রাম, কত আত্মত্যাগ, কত অবিচার-অন্যায় সহ্য করার পর তিনি সৃষ্টি করেছিলেন পৃথিবীর মানচিত্রে এক টুকরো বাংলাদেশ।  জাতির পিতা নিয়ে কিছু লেখার মতো যোগ্যতা এখনো  আমার হয়নি। তবে নিচে তার লিখিত কিছু ভালো লাগার উক্তি দেওয়া হলো। কথা গুলো কি ভিষণ বাস্তব।

কত সহজ ভাবে বাস্তবতা বুঝিয়ে দেয়।  : জেলে যারা যায় নাই, জেল যারা খাটে নাই তারা জানে না জেল কী জিনিস। বাইরে থেকে মানুষের যে ধারণা জেল সম্বন্ধে ভিতরে তার একদম উল্টা।… জেলের ভিতর অনেক ছোট ছোট জেল আছে।”  : “নিষ্ঠুর কর্মচারীরা বোঝে না যে স্ত্রীর সাথে দেখা হলে আর কিছু না হউক একটা চুমু দিতে অনেকেরই ইচ্ছ হয়, কিন্তু উপায় কী?

আমরা তো পশ্চিমা সভ্যতায় মানুষ হই নাই। তারা তো চুমুটাকে দোষণীয় মনে করে না। স্ত্রী সাথে স্বামীর অনেক কথা থাকে কিন্তু বলার উপায় নাই।”  : সকালে ঘুম থেকে উঠলাম। কি হয় আজ? আব্দুল মোনায়েম খান যেভাবে কথা বলছেন তাতে মনে হয় কিছু একটা ঘটবে আজ। কারাগারের দুর্ভেদ্য প্রাচীর ভেদ করে খবর আসলো দোকান-পাট, গাড়ি, বাস, রিক্সা সব বন্ধ। শান্তিপূর্ণভাবে হরতাল চলছে।”  : গুলি ও মৃত্যুর খবর পেয়ে মনটা খুব খারাপ হয়ে গেছে।

See also  একাত্তরের ডায়েরী pdf download | ekattorer diary pdf download

… অনেক রাত হয়ে গেল, ঘুম তো আসে না। নানা চিন্তা এসে পড়ে। এ এক মহাবিপদ, বই পড়ি, কাগজ উল্টাই, কিন্তু তাতে মন বসে না।”  :  ৬ দফার জন্য জেলে এসেছি, বের হয়ে ৬ দফার আন্দোলনই করব। যারা রক্ত দিয়েছে পূর্ব পাকিস্তানের মুক্তিসনদ ৬ দফার জন্য, যারা জেল খেটেছে ও খাটছে তাদের রক্তের সাথে বিশ্বাস ঘাতকতা করতে আমি পারব না।” :  আমার অবস্থা হয়েছে, ‘পর্দানসিন জানানা’র মতো কেউ আমাকে দেখতেও পারবে না, আমিও কাউকে দেখতে পারব না।

কেউ কথা বলতে পারবে না, আমিও পারব না।”  বঙ্গবন্ধু যখন জেলে ছিলেন। তখন তার মায়ের ভিষণ অসুখ হয় এবং তিনি জেলে বসেই তার মায়ের অসুস্থতার খবর পান। তখন তার মায়ের কাছে যাবার কোন উপায় ছিলো না। তিনি বসে ভাবছেন, বঙ্গবন্ধুর ‘মা সায়েরা খাতুন’ খুলনা থেকে তাকে ফোন করে বলেছিলেন ‘তুই আমাকে দেখতে আয়’ আমি আর বেশি দিন বাঁচব না। 

বঙ্গবন্ধু ছিলেন তার বাবা-মায়ের খুব আদরের সন্তান।  তিনি তার ডায়েরীতে লিখেছেন: আমি জানি না আমার মতো এত স্নেহ অন্য কোনো ছেলে পেয়েছে কি না! আমার কথা বলতে আমার আব্বা অন্ধ। আমারা ছয় ভাইবোন। সকলে একদিকে, আমি একদিকে। খোদা আমাকে যথেষ্ট সহ্যশক্তি দিয়েছে, কিন্তু আমার আব্বা-মার অসুস্থতার কথা শুনলে আমি পাগল হয়ে যাই, কিছুই ভালো লাগে না। খেতেও পারি না, ঘুমাতেও পারি না, তারপর আবার কারাগারে বন্দি।”

From the begging of the karagarer rojnamocha pdf book:- 

Introduction to prison diaries

Father of the Nation Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman has fought for the independence of the people of Bangladesh.  He has given up all the comforts of his life and worked tirelessly day and night for the realization of the rights of the people of Bengal. 

He spent most of his life in prison.  He was repeatedly arrested.  He was harassed with false charges.  As the Ayub-Monaim dictatorial government filed one case after another, he was sometimes convicted in those cases. 

There have been times in his life when the sentence of the case has been served, but he is still imprisoned.  He could not even return home after being released from prison, either re-arrested and sent to jail or arrested on the street and sent to jail.

Prison life

Bangabandhu started the language movement in 1947.  On 11 March, he started a movement demanding the status of Bengali as the state language and was arrested.  He was released on March 15. 

Chhatra Sangram Parishad started touring the whole country demanding to make Bengali the state language.  Keep creating public opinion.  Sangram Parishad was formed in every district.  On 11 September 1947, the then government arrested Bangabandhu Sheikh Mujib at Faridpur.  

Released on January 21, 1949.  After his release, he started his tour again to create public opinion across the country.  He supported the demands of the fourth class employees of Dhaka University and took part in the movement for their just demands.  

The government arrested Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman on 19 April 1949.  He was released in July.  After several arrests and releases, he took out a hunger strike on 14 October 1949 at the end of a public meeting at Armanitola Maidan.  

Awami League president Maulana Bhasani, general secretary Shamsul Haque and Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman were arrested when they went on a hunger strike to demand food for the poor.

See also  দ্যা ম্যাজিক অব থিংকিং বিগ pdf download free

This time he was imprisoned for about two years and five months.  He was released from Faridpur Jail on 26 February 1952.  Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman was arrested on 30 May 1954 on his return from Karachi to Dhaka as a member of the United Front cabinet and was released on 23 December.

Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman was arrested on 12 October 1956 by the then military government.  This time, after being imprisoned for about fourteen months, he was released and arrested again at the jail gate.  He was released on December 6, 1980 after filing a writ petition in the High Court.

He was arrested again on February 8, 1972 under the Public Security Act and released on June 16.  He was arrested again 14 days before the 1974 presidential election.

He was sentenced in 1985 to one year in prison for sedition and making offensive remarks.  He was later released from Dhaka Central Jail on the orders of the High Court.

Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman presented a historic six-point demand at the National Conference of Opposition Parties in Lahore on 5 February 1978.  On March 1, he was elected president of the Awami League.

He made the six-point demand for the survival of the people of Bengal, there he demanded autonomy with the underlying goal of independence of Bangladesh.

In the first three months of 1977, Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman was arrested eight times in different cities including Dhaka, Chittagong, Jessore, Mymensingh, Sylhet, Khulna, Pabna and Faridpur for talking about the rights of the people. 

He was arrested at midnight on May 6 after returning to Dhaka after holding his last meeting in Narayanganj.  He had to spend his life in a dark cell of the prison. 

He has spoken against the exploitation of the exploiters, has raised the just demands of the people of Bangladesh, so the government has arrested him with a case whenever he has addressed a public meeting.

On 3 January 1968, the government of Pakistan made Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman the number one accused and filed a conspiracy case against 35 Bengali army and CSP officers in Agartala as separatists.

He was released from Dhaka Central Jail on January 17 and re-arrested from Jailgate and kept under tight security in Dhaka Cantonment.

Five months later, on June 19, the trial of the accused in the Agartala conspiracy case began under tight security in Dhaka Cantonment.  On 22 February 1969, in the face of continued public pressure, the central government withdrew the Agartala conspiracy case and released Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman and other accused.  

আরো পড়ুনঃ- একাত্তর এবং আমার বাবা pdf download

এই শুভ্র এই pdf download

আমি এবং আমরা pdf download

আমিই মিসির আলী pdf link

তাই আর দেরী না করে কারাগারের রোজনামচা pdf download | karagarer rojnamocha pdf download বইটি ডাউনলোড করুন।       

কারাগারের রোজনামচা pdf | karagarer rojnamocha pdf বইটির হার্ডকফি ক্রয় করুন। 

Amazon.in | Rokomari.com |boi-bikroy.com | boibazar.com

Ultra Next Gen

Best website for Bangla pdf download, Travel guides And many more. It’s the best website for this things

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!