Humayun ahmed books pdf

কহেন কবি কালিদাস pdf download by হুমায়ুন আহমেদ (Kohen kobi kalidas pdf)

Name:- কহেন কবি কালিদাস pdf download by হুমায়ুন আহমেদ | Kohen kobi kalidas pdf download by Humayun ahmed     

Author:- Humayun ahmed | হুমায়ুন আহমেদ     

Size:-  9MB

কহেন কবি কালিদাস বই এর রিভিউঃ-

বুক রিভিউ বইয়ের নাম : কহেন কবি কালিদাস লেখক : হুমায়ূন আহমেদ পেজ : ৮০ –  কহেন কবি কালিদাস             পথে যেতে যেতে  নাই তাই খাচ্ছ            থাকলে কোথায় পেতে?  মিসির আলির কাছে এক মহিলা এসেছে তার সমস্যা নিয়ে। সব কিছু একটা খাতায় লেখা৷ এ খাতাটি মিসির আলিকে দিয়ে গেলেন।

এবং পরবর্তীতে তিনি পড়লেন। – মহিলার নাম সায়রা বানু, বাবা রেখেছেন মিথেন আর ছোটবোনের নাম ইথেন। বাবা কেমিস্ট্রি টিচার ছিল।তাই এ ফরমুলা অনুযায়ী নাম রেখেছেন। তারা দুজন ই ইবলিশ শয়তানকে দেখে এবং সরাসরি কথা হবে। ইথেন একদিন ছাদ থেকে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করে। ইথেন বেঁচে থাকাকালীন বলে তার পেটে বাচ্চা, কিন্তু মারা যাওয়ার পর পোস্টমর্টেম করে তা আর পায়নি।

মিসির আলি সাধারণত মানসিক রোগীর দেখাশুনা করে। সাধারণ ঘটনাকে খুব সুক্ষ্মভাবে বিচার বিশ্লেষণ করে রহস্য উদঘাটন করে। কিন্তু সায়রা বানুর এ সমস্যা নিয়ে কেন মিসির আলির কাছে আসলো? – পাঠক প্রক্রিয়া : হুমায়ূন আহমেদের বই আমি খুব দ্রুত পড়তে পারি।

সহজ সরল ভাষায় রচিত বলেই হয়তো। কহেন কবি কালিদাস পড়ে শেষে অবাক হয়েছি। বইয়ের শেষেই মূল টুইস্ট লুকায়িত আছে। অসাধারণ বই উপরের লাইনটি একটি ধাধা,তার উত্তর আমি নিজেও জানি নাহ, কেউ জানলে বলতে পারেন।

বই রিভিউ ২ঃ-

বুক রিভিউ বইঃ কহেন কবি কালিদাস  লেখকঃ’হুমায়ূন আহমেদ’ ▶জনরাঃসমকালীন উপন্যাস  ▶প্রকাশনীঃঅন্বেষা প্রকাশন  বইটিতে বিজ্ঞান, ধর্ম,রহস্য, অভিনয় সব দিক যেন একসাথে ফুটে উঠেছে। বিশেষভাবে রহস্যের দিকটা আর ইবলিশ সেজে পুরুষের কণ্ঠে সায়রার কথা বলার দিকটা অসাধারণ ছিল।

একজন পাঠক হিসেবে প্রতিটি পৃষ্ঠা আপনাকে রহস্যময়তার মধ্যে ফেলে দিবে! নন্দিত কথাসাহিত্যিক ‘হুমায়ুন আহমেদ’ এর মিসির আলি সিরিজের একটি বই কহেন কবি কালিদাস। আর মিসির আলি মানেই তো রহস্যের জন্ম,সমাধানের বৈচিত্র্যতা।এই বইটিও সেটার ব্যতিক্রম নয়। হাবিবুর রহমান একজন কেমিস্ট্রির শিক্ষক।

তাঁর দুই মেয়ে।যেহেতু তিনি রসায়ন পড়াতেন এবং রসায়নেই ডুবে থাকেন,কাজেই তাঁর দুই মেয়ের নাম রাখলেন অদ্ভুত রকমের।বড় মেয়ে মিথেন( CH4) ও ছোট মেয়ে ইথেন (CH3)! বাবাই বেশিরভাগ সময় এই নামে ডাকতেন ওদের।হাবিবুর রহমান খুব বেশি ধার্মিক হয়ে পড়েন, যখন মিথেন ও ইথেনের মা মারা গেলেন।সারাক্ষণ তিনি ধর্মকর্ম নিয়ে থাকতে পচ্ছন্দ করতেন।নামাজ,দোয়া,জিকির, নিয়ে মগ্ন থাকতেন দিনের বেশিরভাগ সময়ই। 

পুরো বইটি একটি মেয়েকে কেন্দ্র করে লিখা।আর সে হলো মিথেন।নামটা যেমন তার অদ্ভুত, কাজকর্মে সেরকমটাই ছিলো সে!তো মিথেনের বাবা যখন ধর্মকর্মে লিপ্ত হলেন,তখন তিনি প্রায়ই মেয়েদেরকে বলতেন তিনি নাকি ইবলিশ শয়তানের দেখা পান,তার সাথে নাকি তিনি কথা বলেন।প্রথম প্রথম মেয়েরা বাবার কথাটায় তেমন একটা গুরুত্ব দিত না।পরে ধীরে ধীরে তারাও দেখতে পাওয়া শুরু করে ইবলিশ শয়তানের।  

রহস্যের জন্ম হয় সেদিন,যেদিন হুট করেই ইথেন বলে যে সে নাকি অন্তঃসত্ত্বা। অথচ সে অবিবাহিত ছিল,তার উপর সে কেবলমাত্র দশম শ্রেণীর ছাত্রী।এই রহস্যের ঘোর কাটতে না কাটতেই  একদিন সে বাড়ির ছাদ থেকে পরে মারা গেল!

See also  মিসির আলি UNSOLVED pdf download free

সে কিভাবে মারা গেল সেটার রহস্যের ভেদ করার দায়িত্ব পড়লো মিসির আলির উপর তিনি রহস্যের জট খুলে দিলেন গল্পের শেষে।তবে সবচাইতে অদ্ভুত বিষয় ঘটল,যখন ইথেনের ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসলো,সেখানে দেখা গেল সে গর্ভবতী ছিল না।তাহলে কেনই বা সে মিথ্যে বললো?আর ইবলিশ শয়তানের রহস্যটাই বা কী ছিল?

কেননা মিসির আলি অলৌকিক কিছুতে বিশ্বাস করেন না। ইথেন তাঁর মৃত্যুর আগে তার অনাগত সন্তানের জন্য একটি চিঠি লেখে এবং সেখানে সে তার অনাগত মেয়ের নাম দেয় ফরমালডিহাইড (HCHO).তবে চিঠিটা কী আদৌও তার লেখা ছিল?কেননা ইথেন ছিল মানবিক শাখার একজন ছাত্রী।  মিথেন এই সব কিছু লিখে নিয়ে আসে একটি ডায়েরিতে।

অধ্যায়ভিত্তিক ভাবে সাজানো ছিল প্রতিটি ঘটনা।কিন্তু মিসির আলির কাছে মিথেনের চালাকি খুব দূর যেতে পারে নি।যদিও মিথেন মিসির আলিকে বলেছিল যে ৫টি অধ্যায় শেষ করে যেন তিনি এই রহস্যের সমাধান করেন।কিন্তু মিসির আলি মাত্র ৩টি অধ্যায় শেষ করে পুরো রহস্যের জট খুলে দিলেন।প্রতিটি ঘটনার সুন্দর ব্যাখ্যা তিনি দিলেন মিথেনের কাছে। কহেন কবি কালিদাস     

পথে যেতে যেতে নাই তাই খাচ্ছ     থাকলে কোথায় পেতে?   ( লোকছড়া)  পড়তে আপনাকে হবেই,হয় বই নয়তো পিছিয়ে!

বই রিভিউ ৩ঃ-

মানুষ স্বপ্নে গন্ধ পায়না-এইটা কী ঠিক?? হুমায়ূন স্যারের বইয়ের একটি বৈশিষ্ট্য ধরতে পেরেছি-প্রায় গল্পে protagonist এর অন্ধ ভক্ত থাকবেই।এই বইয়ে হারুণ ব্যাপারী আর মিসির আলির বাড়িওয়ালা তাঁর ভক্ত। 

আর এই বিষয়টি বেশি দেখা যায় মিসির আলি আর হিমু চরিত্রের বইগুলোতে। এই বইটি শুরু হয় মিসির আলির বাসায় আসা এক বোরকাওয়ালা তরুণীকে দিয়ে।তার নাম সায়রা বানু।সে একটা সমস্যা নিয়ে মিসির আলির কাছে এসেছে।সমস্যা লিখেছে উপন্যাস আকারে-টাইটেল “Autobiography of an unknown young girl”। এই লেখা পড়ে সায়রা বানুর সমস্যা সমাধান করতে হবে মিসির আলির।

আর এই প্লটটাই কাহিনিকে রহস্যময় করে তুলেছে। সায়রা বানুর গল্পে তাঁর বাবা,তার বোনের কথায় বেশি উঠে আসে-তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা উঠে আসে -বেশির ভাগই ইবলিশ শয়তান বিষয়ক।।সায়রা বানুর খাতাটি তিন ভাগে ভাগ করা থাকলেও মিসির আলি তার লেখার গোঁজামিল ধরে ফেলেন -সমাধান পেয়ে যান। লেখক রহস্য ধরে রাখতে পেরেছেন-শেষটা আসলেই বিস্ময়কর।  প্রকৃতি রহস্য পছন্দ করলেও মিসির আলি যে মিমাংসা পছন্দ করেন তা প্রমাণিত। 

From the begging of the Kohen kobi kalidas pdf book:- 

Evening is doing.  Not yet.  The sky is cloudy.  Dark inside the house.  It is unlucky for the house to be dark in the evening.  Miss Ali does not judge by signs.  He says he feels lazy to leave the chair.  

See also  তোমাকে হুমায়ুন আহমেদ pdf download (Tomake humayun ahmed pdf download)

The lights were not on in the house.  He is also in a bit of discomfort.  The young woman sitting in front of him is uncomfortable with him.  The head is covered with a burqa.  For so long he had been talking from inside the burqa, a moment before he had lifted the veil in front of his face.  Miss Ali ate like a push.  He can’t think that he has seen so many beautiful girls.

Elongated face.  Straight nose.  Lipstick can be such a thin lip ad!  Big eyes;  The eyelids are long.  However, this long pallab can also be fake.  Today’s girls wear fake eyelashes.  Ice-cut chin.  Red sesame can be seen on the chin.  This sesame also seems fake. My name is Saira.  Saira Banu.

Misir Ali said a few times in her mind – Saira, Saira.  The arrow frowned slightly.  He did not understand why he took the girl’s name in his mind.  Is he trying to remember the girl’s name?  Why did he do this?  Seeing the unusual form of the girl?  If an ugly girl said her name, would she remember her name in her mind?

Saira, are you fasting?  It will be time for Iftar soon.  I don’t have Iftar here.  There is water.  You can definitely give one plus water.

The girl smiled as she spoke.  The smiles of beautiful girls are not beautiful most of the time.  Can be seen.  Their teeth are bad.  Or the gums come out during laughter.  If the gums are right, the sound of laughter is ugly-hyena.

Type.  Nature does not give everything to anyone.  But Saira gave the girl.  The girl’s smile is beautiful.  Even after the smile was over, the girl’s eyes still held that smile.  Such incidents do not usually happen.

Misir Ali is embarrassed.  The girl has been fasting all day.  Azan of Maghrib will be in a while.  The girl will break the fast.  There is nothing in the house but water.  Can i call you uncle  Cross.  Uncle, don’t worry about my iftar.  My iftar will be arranged.  How?

I have noticed many times.  When I am out during Ramadan, some people bring Iftar for me.  I don’t know sugar.  Someone like that.  You have spoken irrationally. Saira smiled and said, I spoke of faith, not of reason.  I would rather buy some iftar?

See also  আজ আমি কোথাও যাবো না pdf download হুমায়ুন আহমেদ

No, just sit there theI way you are.  Do you have Jainamaz in your house?  I break my fast and pray.  There is no Jainamaz.

Misir Ali is looking at the girl.  The girl is shaking a little now.  The chair in which he is sitting is a wooden chair.  Not the rocking-chair.  Seeing the swing of the girl, it seems that she is sitting in a rocking chair and swinging.  Teenage girls sit in chairs.  Duluni fits, not fits this girl.

Saira!  Yes.  You haven’t told me why you came to me yet.  I will say.  I will say after breaking the fast.  Will you have a problem if I hold a cigarette? No

Misir Ali, holding a cigarette, said that it is the rule to fast from sunrise to sunset.  How do you fast if you go to a tundra area?  There are six months of day and six months of night.

Saira said, Uncle, I did not go to the tundra area.  See you when we go.  Do you want to have tea?  Can I make you a cup of tea?  People who smoke a lot prefer to have tea with cigarettes.  That’s why I said.  If you want to have tea, I can make tea for you.

The girl did not wait for Misir Ali’s permission.  He stood up and said, where is your kitchen? 

Misir Ali reached some conclusions very quickly.  The thing that helped her to reach the conclusion is that the girl went to the kitchen barefoot.  The sandals lay on the side of the chair.  That means the girl walks home barefoot.

  In this house too, he went to the kitchen barefoot as per his old habit.  The floor of the house where this girl walks barefoot should be clean and dustless.  Marble floor or wall to wall carpet in the whole house. 

আরো পড়ুনঃ- একাত্তর এবং আমার বাবা pdf download

এই শুভ্র এই বই pdf download

কহেন কবি কালিদাস বই pdf download

আমিই মিসির আলি pdf download

তাই আর দেরী না করে কহেন কবি কালিদাস pdf download by হুমায়ুন আহমেদ | Kohen kobi kalidas pdf download by Humayun ahmed বইটি ডাউনলোড করুন।      

কহেন কবি কালিদাস pdf | Kohen kobi kalidas pdf বইটির হার্ডকফি ক্রয় করুন। 

Rokomari.com | boi-bikroy.com | boibazar.com | boikhata.com

Ultra Next Gen

Best website for Bangla pdf download, Travel guides And many more. It’s the best website for this things

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!